শোনিম শাহীন কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্প

সিমেক গ্রুপের অন্যতম সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হলো শিন-শিন জাপান হাসপাতাল।। জাপান ও বাংলাদেশের কয়েকজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও ইঞ্জিনিয়ার যৌথ উদ্যোগে আধুনিক মানসম্পন্ন ও চিকিৎসা বিজ্ঞানের সর্বশেষ প্রযুক্তি নিয়ে অক্লান্ত প্রচেষ্টা চালিয়ে প্রতিষ্ঠা করেছেন এই হাসপাতালটি। মূলত বাংলাদেশে জাপানীজ প্রযুক্তি ও সেবার প্রক্রিয়ায় বিশ্বমানের চিকিৎসা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে সম্পূর্ণ কম্পিউটারাইজ্ড পদ্ধতিতে একটি মডেল হাসপাতাল হিসেবে ডিজাইন করা হয়েছে জাপান-বাংলাদেশ জয়েন্ট ভেনচার “শিন-শিন জাপান হাসপাতাল”।

প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই হাসপাতালটি সুবিধাবঞ্চিত জনগনের দোড়গোড়ায় চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দেবার লক্ষ্যে এ পর্যন্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আয়োজন করেছে বিনামূল্যে মেডিকেল ক্যাম্প। সাড়াও পেয়েছে প্রচুর। জনগনের অভূতপূর্ব সহযোগীতা এবং আগ্রহ দেখে আফছানা-শাহীন দম্পতির একমাত্র সন্তান শোনিম শাহীন এর নামে ‘শোনিম শাহীন কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্প’কে নিজস্ব কর্মসূচি হিসেবে গ্রহন করেছে সিমেক ফাউন্ডেশন।

পেশায় অভিজ্ঞ এবং বিশেষজ্ঞ ডাঃ তাছলিমা আখতার এই প্রকল্পের প্রধান হিসাবে দায়িত্ব গ্রহন করেছেন। তিনি জেনারেল ফিজিশিয়ান হিসেবে সাধারন রোগীর পাশাপাশি গর্ভবতী মায়েদের বিশেষ আল্ট্রাসনোগ্রাফি, মা ও শিশুদের স্বাস্থ্য সেবা,মেয়েদের বয়ঃসন্ধিকালীন নানাবিধ সমস্যা এবং বিবাহপূর্ব ও পরবর্তী বিভিন্ন বিষয়ে গ্রামীন জনপদের সুবিধা বঞ্চিত রোগীদের বিনামূল্যে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। “শোনিম শাহীন কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্প” এর আওতায় বিনামূল্যে অতীব প্রয়োজনীয় সাপ্তাহিক চিকিৎসা ও পরামর্শ দিতে সিমেক ফাউন্ডেশন সফল হবে এটাই কামনা।